30.1 C
Mathbaria
রবিবার, মার্চ ২৬, ২০২৩

বেটা ভার্সন

যুক্তরাষ্ট্রে বন্যায় অন্তত ১৫ মৃত্যু, জলবায়ু নিয়ে বাইডেনের সতর্কবার্তা

আরও পড়ুন

অপরাধ

মঠবাড়িয়া উপজেলা

ক্রান্তীয় ঝড় আইডার কারণে সৃষ্ট বন্যায় যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর পূর্বাঞ্চলে নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সি এবং মেরিল্যান্ডে অন্তত ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম।

অঞ্চলটিতে অনেকেই তাদের বাড়ির জলমগ্ন বেইজমেন্টে আটকা পড়েছেন। বন্যায় ভেসে যাওয়া একটি গাড়ির ভেতর থেকেও মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

নিউ ইয়র্ক ও নিউ জার্সির গভর্নররা তাদের নিজ নিজ রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। নিউ ইয়র্ক শহরের মেয়র বিল ডি ব্লাসিও একে ‘আবহাওয়াজনিত ঐতিহাসিহ ঘটনা’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

হারিকেন আইডা, ব্যাপক বন্যা এবং দাবানল বেড়ে যাওয়া- সবই ‘জলবায়ু সংকটের আলামত’ বলে সতর্ক করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেন, “আমাদেরকে ভালভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে। কাজ করে যেতে হবে।”

বাইডেন আরও বলেন, “এই দুর্যোগ আমাদের সময়ের অন্যতম এক বড় চ্যালেঞ্জ। তবে আমরা তা সামাল দিতে পারব বলে বিশ্বাস আছে। আমরা হচ্ছি, যুক্তরাষ্ট্র। আমরা একসঙ্গে কাজ করলে কোনওকিছুই আমাদের আয়ত্বের বাইরে নয়।”

হারিকেন আইডার কারণে নিউ ইয়র্কের সেন্ট্রাল পার্কে কেবল এক ঘণ্টাতেই অন্তত ৮ সেন্টিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে বিবিসি’র এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, কেবল নিউ ইয়র্ক সিটিতেই ৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে; এদের বেশিরভাগই মারা গেছে কুইন্সে। আর নিউ জার্সিতে মারা গেছে ৫ জন এবং মেরিল্যান্ডে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বাড়িতে পানি ঢুকেই বেশিরভাগ মানুষ মারা গেছে। কুইন্সে পানিতে ভেসে যাওয়া একটি বাড়ির বেজমেন্টে ২ বছরের এক শিশুসহ তিনজনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে নগরীর দমকল বিভাগ।

 

নিউ জার্সির শহর পাসাইকের মেয়র হেক্টর লরা সিএনএন-কে বলেন, বন্যায় ভেসে যাওয়া একটি গাড়ির ভেতর থেকে বয়স ৭০ এর ঘরে থাকা এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

নিউ জার্সির এলিজাবেথ নদীর তীর বরাবর একটি অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সে ৪ জন বাসিন্দা ডুবে মারা গেছে। মেরিল্যান্ডেও বন্যায় ভেসে যাওয়া অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সে ১৯ বছর বয়সী একজনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে বাড়িঘর ও সাবওয়ে স্টেশনে পানি ঢুকতে এবং একাধিক সড়কে বন্যার পানি দেখা গেছে।

নিউ ইয়র্কের বাসিন্দা জর্জ বেইলি জানান, বন্যা এত ভয়াবহ রূপ নেবে তা ধারণা করেননি তিনি।

“রাতের খাবারের মাঝখানে আমি গুড়গুড় শব্দ শুনি, পানি তখন আমাদের স্নানঘরের শাওয়ার ড্রেইন থেকে বেরিয়ে আসছিল। আমি এরপর ইউটিলিটি ঘরের মূল পানির লাইন চেক করতে যাই, যখন ফিরে আসি ততক্ষণে লিভিং রুমে এক ফুটের মতো পানি হয়ে গেছে। এত দ্রুত এমনটা হয়েছে যে অবিশ্বাস্য,” বলেছেন তিনি।

বন্যার কারণে নিউ ইয়র্ক শহরের প্রায় সব সাবওয়ে লাইন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জরুরি নয়, সড়কে এমন যানবাহনের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। স্থগিত হয়েছে অসংখ্য বিমান ও ট্রেনের যাত্রাও।

যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া বিভাগ নিউ ইয়র্ক শহর, ব্রুকলিন, কুইনস ও লং আইল্যান্ডের একাংশে ‘জরুরি বন্যা পরিস্থিতি’ ঘোষণা করেছে। ম্যাসাচুসেটস ও রোড আইল্যান্ডে জারি হয়েছে টর্নেডো সতর্কতা।

ক্রান্তীয় আইডার অবশিষ্টাংশের প্রভাবে নিউ ইয়র্ক ও নিউ জার্সিতে আবহাওয়ার এ ‘চরম রূপ’ দেখা যাচ্ছে।

চার মাত্রার হারিকেনের শক্তি নিয়ে আঘাত হানা আইডা কয়েকদিন আগেই লুইজিয়ানার দক্ষিণে তাণ্ডব চালায়। পরে এটি দুর্বল হয়ে ক্রান্তীয় ঝড়ে পরিণত হয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক মঠবাড়িয়া প্রেস-কে জানাতে ই-মেইল করুন- mathbariapress24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

উপকূল সহ দক্ষিন বাংলার আরও সংবাদ

সর্বশেষ